শিশু সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর বাবার আত্মহত্যা

Spread the love

শিশু সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বাবা রাশেদুল (৪০)। নিহত শিশুর নাম সাঈদী হাসান (৬)। আজ সোমবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের জয়দেবপুর থানাধীন পেয়ারা বাগান এলাকায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। রাশেদুল পরিবারসহ ওই এলাকায় থাকতেন।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করে জয়দেবপুর থানার ভোগড়া পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, “গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভোগড়া পেয়ারা বাগান এলাকার স্থানীয় আবুল হোসেনের বাড়িতে ছয় বছরের ছেলে সাঈদী হাসান ও তার বাবা-মাকে নিয়ে ভাড়া থাকতো রাসেদুল। পেশায় সে ভ্যানগাড়ি চালক। তার স্ত্রী গ্রামের বাড়ি রংপুরে থাকে। পারিবারিক কলহের জেরে রাসেদুল তার ছেলে সাইদী হাসান (৬) কে বটি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে। পরে রাশেদুল (৪০) ঘরের দরজা বন্ধ করে ফাঁসিতে ঝুঁলে আত্মহত্যা করে। ”

তিনি আরও জানান, “নিহতদের বাড়ি রংপুরের মিঠাপুকুর থানার বড় হযরতপুর গ্রামে। ঘটনার সময় রাসেদুলের পিতা মাতা ঘরে ছিলেন না। পরে পাশের ঘরের লোকজন ঘরের দরজা ভেঙ্গে দুজনের মরদেহ দেখতে পায়। খবর পয়ে পুলিশ নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। ”

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ