বসুন্ধরায় পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া: আটক ২৫

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের দিনভর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরে ভেতর থেকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সরিয়ে দিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে অন্তত ২৫ শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। আর শিক্ষার্থীরা দাবি করেছে, পুলিশের রাবার বুলেট ও লাঠিচার্জে নর্থ-সাউথ ও আইইউবি’র অন্তত অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

এদিকে, এ আন্দোলন থেকে নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা সরে গেছে বলে দাবি করেছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির জনসংযোগ কর্মকর্তা বেলাল আহমেদ। তিনি সন্ধ্যা সাতটায় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘আমাদের স্টুডেন্টরা অলরেডি ক্যাম্পাস ছেড়ে চলে গেছে। ক্যাম্পাস ফাঁকা।  ভিসি বুঝিয়ে স্টুডেন্টদের ক্যাম্পাস থেকে পাঠিয়ে দিয়েছেন। এখন যারা বাইরে আছে তারা কারা জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাইরে কারা আছে তা বলতে পারবো না। তবে সেখানে যদি নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির কেউ থেকে থাকে তাহলে তাদের কোনও সমস্যা হলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোনও দায় নেবে না।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিক্ষার্থীদের হামলায় গুলশান পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহানুল,  ভাটারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান,  ও এক কনস্টেবল আব্দুর রউফ আহত হওয়ার পর বসুন্ধরায় পুলিশ মারমুখী হতে শুরু করে।

তারা জানান, বিকাল ৫ টার দিকে পুলিশ সদস্যরা যখন শিক্ষার্থীদের মাইকে কথা বলে বোঝানোর চেষ্টা করছিলেন তখন শিক্ষার্থীরা পুলিশের সঙ্গে কথা বলতে এসে তাদের ওপর চড়াও হয় এবং পুলিশ সদস্যদের দিকে তেড়ে আসতে থাকে। পরে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ তাদের ওপর লাঠি চার্জ করে। এসময় ওই ঘটনাস্থল থেকে তিন ছাত্রকে আটক করে পুলিশ। এরপর এই ঘটনায় আরও অনেককে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

গুলশান বিভাগের এডিসি আব্দুল আহাদ জানান, পুলিশের ওপর হামলা করার কারণে অনেককে আটক করা হয়েছে। তবে নির্দিষ্ট সংখ্যা বলা যাচ্ছে না। তাদের সবাইকে থানায় পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ