কুষ্টিয়ায় পরকীয়া করতে গিয়ে প্রেমিকা কর্তৃক পুরুষাঙ্গ কর্তনে প্রেমিকের মৃত্যু

Spread the love

সেলিম তাক্কু,কুষ্টিয়া থেকে: কুষ্টিয়ায় পরকীয়া করতে গিয়ে পুরুষাঙ্গ হারিয়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে এক প্রেমিকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত ওই প্রেমিকের নাম হাবিবুর রহমান (৩৫)।

এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার বিকেলে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আল্লার দর্গা’র গাড়া দাইড় পাড়া গ্রামে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আল্লার দর্গা’র মৃত সাইদ মাষ্টারের ছেলে হাবিবুরের সাথে ওই এলাকার গাড়া দাইড় পাড়ার আমিরুল ইসলামের স্ত্রী স্বামী পরিত্যক্তা মাছুরা খাতুন (৩২) এর সাথে বেশ কিছুদিন আগে থেকে পরকীয়া প্রেম চালিয়ে আসছিল। এরই এক পর্যায়ে আজ মঙ্গলবার বিকেলে মাছুরা গাড়া দাইড় পাড়া তার বোনের বাড়িতে প্রেমিক হাবিবুর কে ডেকে নেয়।
পরে মাছুরা ও হাবিবুর ফাকা বাড়িতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় প্রেমিকা মাছুরা প্রেমিক হাবিবুরের পুরুষাঙ্গ কামড়ে কেটে নেয়! এ সময় হাবিবুরের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে চিকিৎসার এক পর্যায়ে সন্ধ্যা ৭ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, মাছুরার সাথে হাবিবুর পরকীয়ায় জরিয়ে পরে বেশ কিছুদিন মেলা মেশার পর এদানিং মাছুরাকে আর পাত্তা দিচ্ছিল না এবং মাছুরা বিয়ের কথা বললে হাবিবুর নানা তালবাহানা করছিল। প্রতিশোধ নিতেই এরই মাঝে কৌশলে হাবিবুরকে ডেকে নিয়ে মাছুরা তার প্রেমিক হাবিবুরের পুরুষাঙ্গ কামড়ে কেটে ফেলেন।
কুষ্টিয়া মডেল থানার এ এস আই আতিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ