গৃহবধুকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

Spread the love

।। যশোর প্রতিনিধি।।

 

ঢাকা ক্রাইম ডটকম: যশোরে চিন্তা মজুমদার (২৫) নামে এক গৃৃহবধুকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্বজনদের দাবি,নিহতের স্বামী প্রথমে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পরে গলায় উড়না দিয়ে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলিয়ে রাখে৷ ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার গভীর রাতে নিহত গৃৃহবধুর স্বামীর বাড়িতে৷

নিহত গৃৃহবধু শহর তলীর শেখহাটি কালীতলা গ্রামের নরহরী মজুমদারের স্ত্রী ও শহরের সিটি কলেজ পাড়া এলাকার নারায়ন সোমের মেয়ে৷
নিহত গৃৃহবধু চিন্তা মজুমদারের ভাই নিত্য সোম অভিযোগ করে বলেন, নিহত চিন্তা ও নরহরীর দশ বছর আগে প্রেমকরে বিবাহ করে৷ তাদের ঘরে অথৈ(৭) ও জবা (২) নামে দুটি কন্যা সন্তান আছে৷

বুধবার রাত দশটা পর্যন্ত আমাদের বাড়ির লোকজন নরহরী দের বাড়িতে ছিলো৷ তারপর তারা বাড়িতে চলে আসে৷ এরপর রাত একটার দিকে নরহরী আমাদের মোবাইল ফোনে জানায় চিন্তা গলায় ফাঁঁশ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে৷ কিন্তু আমরা তাদের বাড়িতে যেয়ে দেখি চিন্তার আত্মহত্যা করার মত কোন অবস্থা নাই৷ তবে নরহরী ও তার পরিবারের লোকজন চিন্তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ঘরের আড়ার সাথে উরনা দিয়ে ঝুলিয়ে রেখেছিলো৷ ওই রাতেই তারা চিন্তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়৷ কিন্তু কি কারনে তাকে হত্যা করেছে এই মুহুর্তে বলা সম্ভব হচ্ছেনা৷ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক আব্দুর রশীদ বুধবার দিবাগত রাত দেটটার দিকে তাকে মৃৃত ঘোষনা করে বলেন তাকে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃৃত্যু হয়েছে৷

কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক(এস আই) সোবহান শরীফ বলেন এ মৃৃত্যুর ঘটনায় থানায় একটি অপমৃৃত্যু মামলা হয়েছে৷ ময়না তদন্ত রিপোর্টের পরে জানাযাবে এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা৷

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ