বহুল আলোচিত গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ

Spread the love

।। ডেস্ক রিপোর্ট ।।

ঢাকা ক্রাইম ডটকম: দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর আজ বুধবার (১০ অক্টোবর) বহুল আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ও হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর পুরান ঢাকায় ১ নম্বর অস্থায়ী দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নুর উদ্দিন রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য আজকের দিন ধার্য করেন।

দেশের ইতিহাসে এটিই প্রথম মামলা, যে মামলার আসামির তালিকায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, দেশের সাবেক তিন আইজিপি ছাড়াও পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর একাধিক কর্মকর্তার নাম রয়েছে। একইসঙ্গে তারেক রহমানকে এ গ্রেনেড হামলার ষড়যন্ত্রের মূল ব্যক্তি বলে মনে করে রাষ্ট্রপক্ষ। তাই তারেক রহমানসহ এ মামলার সব আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করা হচ্ছে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে।

অন্যদিকে আসামিপক্ষ মনে করছে, অধিকতর তদন্তের মাধ্যমে তারেক রহমানসহ যাদের আসামি করা হয়েছে, সেটা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে। এসব আসামির বিরুদ্ধে আনা কোনো অভিযোগই রাষ্ট্রপক্ষ প্রমাণ করতে পারেনি বলেও মনে করেন আসামি পক্ষের আইনজীবীরা।

হাই প্রোপাইল এই মামলার রায়কে ঘিরে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে স্থাপিত ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইবুনাল-১ এলাকায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

গত বছরের ২৩ অক্টোবর এই মামলার যুক্তিতর্ক শুনানি শুরু হয়। টানা ১১৯ কার্যদিবস যুক্তিতর্ক শুনানি হয়। এর আগে রাষ্ট্রপক্ষে ২২৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।

আসামিদের মধ্যে লুৎফুজ্জামান বাবর, আবদুস সালাম পিন্টু, মেজর জেনারেল (অব.) রেজ্জাকুল হায়দার, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আবদুর রহিম, লে. কর্নেল (অব.) সাইফুল ইসলাম জোয়ার্দার, মহিবুল্লাহ ওরফে অভি, আরিফ হাসান ওরফে সুমনসহ ৩১ জন কারাগারে।

তারেক রহমান, হারিছ চৌধুরী, মেজর জেনারেল (অব.) এ টি এম আমিন, সাবেক অতিরিক্ত ডিআইজি খান সাইদ হাসান, সাবেক পুলিশ সুপার ওবায়দুর রহমান, মুফতি শফিকুর রহমানসহ ১৮ জন পলাতক।

২১ আগস্টের ওই গ্রেনেড হামলায় সাবেক রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আওয়ামী লীগের তখনকার মহিলাবিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানসহ ২৪ জন প্রাণ হারিয়েছিলেন। গ্রেনেডের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত হয়েছিলেন ঢাকার তৎকালীন মেয়র মোহাম্মদ হানিফ। কয়েক বছর ধুঁকে পরে তিনি মারা যান। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে ওই হামলা চালানো হলেও দলের উপস্থিত নেতাকর্মীরা মানবঢাল তৈরি করে কোনোমতে তাকে রক্ষা করেন। ফলে অনেক নেতাকর্মী আহত হন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ