‘বিনা উসকানিতে নয়া পল্টনে সংঘর্ষে জড়িয়েছে বিএনপি কর্মীরা’

Spread the love

।।নিজস্ব প্রতিবেদক।।

বিএনপি কর্মীরা বিনা উসকানিতে নয়া পল্টনে সংঘর্ষে জড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (কাউন্টার টেররিজমের প্রধান) মনিরুল ইসলাম।

বুধবার দুপুরে নয়া পল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে দলটির কর্মীদের সংঘর্ষের পর এ মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় মহানগর পুলিশের ‍মতিঝিল জোনের এডিসিসহ ১৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

সংঘর্ষ থিতিয়ে আসার পর ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল বলেন, “বিনা উসকানিতে ইস্যু তৈরি করার জন্য এটা করেছে ওরা।”

নির্বাচনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময় শৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হলেও বিএনপি নেতাকর্মীরা তা মানেনি বলে অভিযোগ করেন তিনি।

পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে গেলে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা ঢিল ছুড়তে শুরু করে বলে অভিযোগ করেন মনিরুল।

তিনি বলেন, “দুজন রাজনৈতিক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময় হাজার হাজার নেতাকর্মী পার্টি অফিসের সামনে আসে। এ সময় রাস্তা বন্ধ হয়ে হয়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।”

সংঘর্ষের মধ্যে পুলিশের দুটি সেডান গাড়ি ও একটি ভ্যানে বিএনপিকর্মীরা হামলা করে এবং পরে দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে জানান তিনি।

বিএনপি নেতাকর্মীদের সুশৃঙ্খলভাবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার অনুরোধ জানিয়ে মনিরুল বলেন, “পুলিশ রাষ্ট্রের কর্মচারী। পুলিশকে প্রতিপক্ষ ভাববেন না।”

দুপুরে এই সংঘর্ষের সময় কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে ফকিরাপুলের দিকে রাস্তার উভয় পাশে যান চলাচল বন্ধ থঅকে। পরে বিকেল সোয়া ৩টার পর থেকে যান চলাচল স্বাভাবিক হতে শুরু করে।

বুধবার বেলা ১টার আগে আগে কর্মী সমর্থকদের একটি মিছিল বিএনপি কার্যালয়ে আসার সময় পুলিশ নিষেধ করলে সংঘর্ষ শুরু হয়।

এক পর্যায়ে পুলিশ টিয়ার শেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।

প্রত্যক্ষদর্শী একজনের ভাষ্য, হঠাৎ করে গোলাগুলির আওয়াজ পাওয়া যায়। এরপরই বিএনপির নেতা-কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাধে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করতে সরকার এ ঘটনা ঘটিয়েছে।’

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ