সাভারে ইট দিয়ে থেঁতলে স্কুলছাত্রকে হত্যা 

Spread the love
নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর উপকণ্ঠ সাভার উপজেলায় নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর বংশী নদী থেকে রোহান ইসলাম আবিদ নামের (৯) এক শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে ঘাড় মটকে ও ইট দিয়ে থেঁতলে হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। শিশুটির নির্মম মৃত্যুতে ওই এলাকায় শোকের কালো ছায়া নেমে এসেছে।
১৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকালে সাভার মডেল থানা পুলিশ সাভারের বংশী নদীর ভাগলপুর বালুঘাট এলাকা থেকে ওই স্কুল ছাত্রের মৃতদেহ করে ময়না তদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠিযে দেয়।
এ প্রসঙ্গে সাভার মডেল থানার এসআই এনামুল জানান, গত দুই দিন আগে স্থানীয় তালবাগ এলাকার আফজাল হোসেনের ছেলে রোহান ইসলাম আবিদের সাথে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ঝগড়া হয় প্রতিবেশী গোলাম আজম নামের এক যুবকের সাথে। রোহান স্থানীয় কিডস ইউনিভার্সিটি স্কুলের প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিলো। পরে গতকাল বুধবার সকালে গোলাম আজম, রাহুল ও রহিম নামের তিন যুবক রোহানকে বাড়ী থেকে ডেকে বংশী নদীর ভাগলপুর বালুঘাট এলাকায় নিয়ে যায়। পরে ওই শিশু শিক্ষার্থী রোহানকে তিনজন মিলে ঘাড় মটকে হত্যার পর বংশী নদীতে মৃতদেহটি ফেলে দেয়।
পরে বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয়রা নদীতে রোহানের মৃতদেহ দেখে সাভার মডেল থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়। এঘটনায় পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে রাহুল ও রহিম নামের দুই যুবককে আটক করতে পারলেও গোলাম আজম পালিয়ে যেতে সমর্থ হয়। তবে তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশের টিম কাজ করছে এবং মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।
Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ