সদ্য প্রাপ্ত

অপরিশোধিত পানি বিক্রি: ২ প্রতিষ্ঠান সিলগালা ও জরিমানা আদায়

Spread the love

।। নিজস্ব প্রতিবেদক।।

রাজধানীর বাড্ডা, নর্দা ও শাহজাদপুর এলাকার ৪টি পানি বিশুদ্ধকরণ ও বিপণন কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। অপরিশোধিত খাবার পানি বাজারজাত করায় ৩টি প্রতিষ্ঠানকে মোট সাড়ে ৭লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

দু’টি প্রতিষ্ঠানকে সিলগালাসহ ৩ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ভ্রামম্যাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সময় খাবার হোটেল, রেস্টুরেন্ট বা চায়ের দোকানে বিশুদ্ধ পানি হিসেবে জারের পানি কিনে পান করেন। জারে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করার কথা থাকলেও অভিযানে গিয়ে দেখা যায়, কয়েকটি প্রতিষ্ঠান তা করছে না। তারা পানি বিশুদ্ধ করা ছাড়াই সরবরাহ করে।

অভিযানে অনিয়ম পাওয়ায় শাহজাদপুর এলাকার মালং ড্রিংকিং ওয়াটারকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। অন্যদিকে ময়নারবাগের ‘আর ইসলাম ড্রিংকিং ওয়াটার’কে ৩ লাখ টাকা জরিমানা ও একই এলাকার সাবরিনা ড্রিংকিং ওয়াটারকে আড়াই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি এ প্রতিষ্ঠান দুটিকে সিলগালা করার নির্দেশ দেন আদালত।

অন্যদিকে নর্দার শিকদার ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস এর একজনকে তিন মাসের কারাদণ্ড, মধ্যবাড্ডার আফনান মেডিসিন কর্নারের ২ জনকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

সারওয়ার আলম বলেন, এসব প্রতিষ্ঠানে ডিপ কল দিয়ে পানি উত্তোলন করে সরাসরি জারে ভরে বাজারজাত করা হতো। এই পানিগুলোর কোনো মান নেই। স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর এসব পানি। অভিযানকালে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউট’স (বিএসটিআই) ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

 

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ