বিশেষ ডিভাইসে মোবাইলের আইএমইআই নাম্বার পরিবর্তন: যাচ্ছে অপরাধীদের হাতে

Spread the love

।। মো: মাহমুদ হোসাইন।।

ঢাকা ক্রাইম ডটকম: বিশেষ ডিভাইস ব্যবহার করে চোরাইকৃত মোবাইলফোনের আইএমইআই নাম্বার পরিবর্তন করে বেশি দামে অপরাধীদের কাছে বিক্রি করছে একটি সংঘবদ্ধ চক্র। সম্প্রতি এক দাগী অপরাধীর মোবাইলফোন ট্রাকিং করতে গিয়ে জানা যায়, একই মোবাইলফোনের আইএমইআই নাম্বার ব্যবহৃত হচ্ছে একাধিক মোবাইলে। এরপরই তদন্তে নামে পুলিশের এলিটফোর্স র‌্যাব। প্রায় বছরখানেক চেষ্টা চালিয়ে একটি সংঘবদ্ধ চক্রকে ধরতে সক্ষম হয় র‌্যাব-৩ ব্যাটালিয়ন।

মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) কাওরান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজত সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব-৩ এর অধিনায়ক (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. এমরানুল হাসান একথা জানিয়েছেন।

এর আগে সোমবার রাতে রাজধানীর গুলিস্তান পাতাল মোবাইল মার্কেট ও গুলিস্তানের মাওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়াম মার্কেটে অভিযান চালিয়ে ৫৩১টি মোবাইল চোরাই মোবাইল, দু’টি সিপিইউ ও আইএমইএই নম্বর পরিবর্তনের কাজে ব্যবহৃত ৬টি ডিভাইসসহ আটক করে র‍্যাব-৩। আটক ১৫ জন ৫-৬ মাস ধরে এ কাজ করছে বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, মোতালেব (২৬), রিপন (৩৭), মান্নান (৩৯), রাশেদ খান (২৪) আনিস মোল্লা (২৮) জাহিদুল ইসলাম (২১) পলক (১৯) রাশেদুল ইসলাম (২১) নাঈম সর্দার (১৮) স্বপন (২৬) রানা হামিদ (২২) মাসুদ রানা (২৪) নাজিম (২৬) কামাল হোসেন (১৭)।

র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক (সিও) লে: কর্ণেল এমরানুল হাসান মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, রাজধানীর গুলিস্তান এলাকায় একদল সংঘবদ্ধ অসাধু চক্র দীর্ঘদিন যাবত চোরাই ও ছিনতাইকৃত বিভিন্ন মডেলের ও ব্রাণ্ডের মোবাইলফোন এর আইএমইআই নাম্বার সুকৌশলে পরিবর্তন করে আসছে। গোয়েন্দা তথ্য নিশ্চিত হবার পর অভিযানে গিয়ে প্রথমে রাজধানীর গুলিস্তান পাতাল মোবাইল মার্কেটে আইএমইআই নাম্বার পরিবর্তনকালে মাসুদ লাকুরিয়া(১৮) নামে এক যুবককে আটক করি। তাতক্ষনিক জিজ্ঞাসাবাদে সে আরও বেশ কয়েকজনের নাম জানালে রাজধানীর গুলিস্তানের মাওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়াম মার্কেটে অভিযানে যায় র‌্যাব-৩ এর আরেকটি দল। সেখানে গিয়ে ভয়াবহ চিত্র উঠে আসে।

তিনি বলেন, আলী স্পোর্টস, সিমলা ইলেক্ট্রনিক্স, সাকিব ইলেক্ট্রনিক্স, আজমেরি ইলেক্ট্রনিক্স, আবির ইলেক্ট্রনিক্স, সুমাইয়া টেলিকম, ইলেক্ট্রনিক্স কর্ণার, আল আমিন ইলেক্ট্রনিক্স, রহমত ইলেক্ট্রনিক্স ও সিটি ইলেক্ট্রনিক্স দোকানে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

পরে র‌্যাব-৩ সিও বলেন, ফ্যালকন, সিগমা, জেথ থ্রি, জেকেএফ নামের বিদেশী ফ্লাশার ডিভাইস ব্যবহার করে মোবাইলফোনের আইএমইআই নাম্বার পরিবর্তন করে আসছে চক্রটি। একেক মোবাইলে একেক ডিভাইস ব্যবহার করে থাকে। জব্দকৃত আইফোন, শাওমি, স্যামসাং, হুওয়াওয়ে, সিম্ফোনি, ভিগোসহ বিভিন্ন ব্রাণ্ডের মোবাইলফোনের আইএমইআই নাম্বার পরিবর্তনে তারা মাত্র ১০ থেকে সর্বোচ্চ আধা ঘন্টা সময় নেয়। আরও একটি শক্তিশালী চক্র এসব মোবাইলফোনের আইএমইআই নাম্বার পরিবর্তনে জড়িত। তাদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ