বাবরের ‘স্পেশাল’ সেঞ্চুরি

Spread the love

।। স্পোর্টস ডেস্ক ।।

টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডেতে নিয়মিত রানের বন্যা বইয়ে দেন বাবর আজম। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করতেও দারুণ পারদর্শী তিনি। একদিনের ফরম্যাটে টানা তিন সেঞ্চুরি হাঁকানোরও রেকর্ড আছে তার।

তবে টেস্টে শতক পাওয়া হচ্ছিল না পাকিস্তানের রানমেশিনের। অবশেষে ক্রিকেটের অভিজাত সংষ্করণেও কাঙ্ক্ষিত তিন অংকের দেখা পেলেন তিনি। তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হার না মানা ১২৭ রানের ইনিংস খেলেছেন বাবর। অভিষেক সেঞ্চুরিকে ‘স্পেশাল’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন ডানহাতি স্টাইলিশ ব্যাটার।

বাবর বলেন, এটি আমার ‘স্পেশাল’ সেঞ্চুরি। আমার অনেক হিতাকাঙ্ক্ষী সিনিয়র ভাইয়েরাও তা বলছেন। আমি এদিন ব্যাপক অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছি। সংযুক্ত আরব আমিরাতের উইকেট খুবই স্লো ছিল। এখানে রান করা কঠিন। প্রচুর ধৈর্যের দরকার। সেটি আমি দেখাতে পেরেছি। কদিন আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৯৯ রানে আউট হয়েছিলাম। এবার তা অতিক্রম করেছি। নিশ্চিতভাবেই এটি বিশেষ সেঞ্চুরি।

ক্রিকেটের আদি ঘরানায় প্রথমবারের মতো তিন অংকের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করে আত্মবিশ্বাসও বেড়ে গেছে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানের। ওয়ানডে ৮ সেঞ্চুরি করলেও এ জ্বালানি পাননি তিনি। ২৪ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান বলেন, টেস্টে ১০০ করতে পেরে যেন আত্মবিশ্বাসে টগবগ করে ফুটছি। এ শতক আমাকে অনেক আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে। আগের তিন ঘর ছোঁয়া ইনিংসগুলোর একটিও যা পারেনি। এতে সেঞ্চুরি পেয়ে আমি মহাখুশি।

বাবরের আনন্দে আটখানা হওয়ায় যৌক্তিক। টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডেতে রানের ফোয়ারা ছোটালেও টেস্টে বারবার ব্যর্থ হচ্ছিলেন। তিন সংষ্করণে তার গড়ও তা বলে দেয়। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত এবং ওডিআই ফরম্যাটে যথাক্রমে গড় ৪৭ ও ৫৯ হলেও লংগার ভার্সনে মাত্র ২৪। এ অবস্থায় সেঞ্চুরি পাওয়া মানে এতেও গেরো খুলে যাওয়া।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ