ভারতের ঋণে বিআরটিসি কিনছে তিন শ’ বাস

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারত সরকারের ঋনের আওতায় বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন-বিআরটিসিকে ৩০০ দোতলা বাস সরবরাহ করতে যাচ্ছে গাড়ী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অশোক লেল্যান্ড লিমিটেড।

এ উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর প্যান প্যাসেফিক সোনারগাঁও হোটেলে দুটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

চুক্তিতে বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন এবং সেতু মন্ত্রণালয়ের পক্ষে বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ভুঁইয়া এবং অশোক লেল্যান্ড লিমিটেডের পক্ষে গ্লোবাল সেলস এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন এর প্রেসিডেন্ট রাজিব সাহারিয়া চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

ইন্ডিয়ান লাইন অব ক্রেডিট(এলওসি-২) এর আওতায় কেনা নতুন এই ২০০টি দোতলা বাস বিআরটিসি’র বহরে যুক্ত হচ্ছে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, ভারতীয় হাইকমিশনার শ্রী হর্ষ বর্ধণ শ্রিংলা, বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন এবং সেতু মন্ত্রণালয়ের পক্ষে বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ভুঁইয়া, অশোক লেল্যান্ড লিমিটেডের পক্ষে গ্লোবাল সেলস এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন এর প্রেসিডেন্ট রাজিব সাহারিয়া, ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপু, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন আহমেদ এবং বাংলাদেদেশ সড়ক পরিবহন এবং সেতু মন্ত্রণালয় ও বিআরটিসির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিআরটিসি সূত্রে জানা গেছে, ভারতীয় লাইন অব ক্রেডিট(এলওসি-২) এর আওতায় ‘বিআরটিসি’র জন্য দ্বিতল, একতলা এসি ও নন এসি বাস সংগ্রহ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৬০০ টি বাস সংগ্রহ করছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। প্রকল্পের আতওায় ২৩৯ কোটি ৬ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রথমে ৩০০ টি বাস ও ১০ শতাংশ যন্ত্রাংশ ও অন্যান্য সেবা দেবে অশোক লেল্যান্ড। প্রতিটি বাসের মূল্য পড়ছে ৮৬ লাখ টাকা। আগামী নভেম্বর ডিসেম্বররের মধ্যে বাসগুলো হস্তান্তরের কথা থাকলেও সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের অনুরোধে আগামী অক্টোবরের শেষের দিকে প্রথম চালান হস্তান্তরের কথা রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ