যুক্তরাষ্ট্র পর্যবেক্ষক পাঠাবে: এইচ টি ইমাম

Spread the love

।। নিজস্ব প্রতিবেদক ।।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেছেন ,  আগামী জাতীয় নির্বাচনে যুক্তরাষ্ট্র পর্যবেক্ষক দল পাঠাবে। ওরা অত্যন্ত সন্তুষ্ট। এটাই হচ্ছে ওদের কাছে সবচেয়ে সন্তোষজনক। এমন কোনো দল নেই, যারা অংশগ্রহণ করছে না। ওরা বরঞ্চ খুব অবাক—এতগুলো দল, এতগুলো জোট তোমরা ম্যানেজ করছো কীভাবে। ওরা ভাবতেই পারে না, আমরা এগুলো করতে পারি।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশে নির্বাচন পরিচালনা অফিসে দুই মার্কিন কর্মকর্তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে তিনি এ কথা বলেন।

এইচ টি ইমাম বলেন, আমরা চাই একটি অংশীদারিত্বমূলক নির্বাচনে সকলে অংশগ্রহণ করুক। একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও অত্যন্ত স্পষ্ট একটি নির্বাচন—যেটি সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে। এই আদর্শগুলো আমেরিকানরাও ধারণ করে। তাদের সঙ্গে আমাদের মতের যথেষ্ট মিল আছে। এই জন্যই তারা আমাদের এখানে এসেছেন। এটিই প্রথম নয়, কিছুদিন আগে ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক এসেছিলেন এবং আওয়ামী লীগ অফিসে প্রায়ই অনেকে এসে দেখা করেন।

তিনি বলন, মার্কিন প্রতিনিধিরা বলেছেন তারা অত্যন্ত খুশি। সব জোটের সঙ্গে সংলাপ হয়েছে। এখানে সবাই তাদের কথা বলেছেন। সরকারের বিরুদ্ধে তারা তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তাদের ক্ষোভের জায়গাগুলো তারা বলেছেন এবং সরকার হাসিমুখে তা নিয়েছে। যা যা করার দরকার ছিল, যে প্রতিশ্রুতি জননেত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছিলেন আমরা সে প্রতিশ্রুতিগুলো পালন করছি। আমরা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরির চেষ্টা করছি সর্বাত্মকভাবে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন পর্যবেক্ষক না পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাহলে যুক্তরাষ্ট্র কেন পাঠাবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র অবজারভার পাঠাবে। ওরা সব জায়গাতেই পাঠায়। ওরা বলছে, নির্বাচন কেমন হয় দেখব? সত্যিকার সুষ্ঠ হয় কি না? ওদের তো কতগুলো থিঙ্ক ট্যাংক আছে। যুক্তরাষ্ট্র আর ইউরোপীয় ইউনিয়ন এক নয়।’
তিনি বলেন, আমি কথায় কথায় বলেছিলাম মুক্তিযুদ্ধের সময় আমেরিকার জনগণ আমাদের দ্বিগুণভাবে সমর্থন করেছে— যদিও সরকার তখন আমাদের বিরোধী ছিল। যাওয়ার আগে বিল মোলার বলে গেলেন। তখন উনি সঙ্গে সঙ্গে মনে করিয়ে দিলেন, আমেরিকা আবার ভুল বুঝতে পেরে ৪ এপ্রিল স্বাধীনতার পর পরেই অনেক দেশের আগে আমাদেরকে স্বীকৃতি দিয়েছিল।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ