সদ্য প্রাপ্ত

বাসন্তী চাকমার বিতর্কিত বক্তব্য; উত্তাল রামগড়

Spread the love

এমদাদ খান, রামগড়(খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি: পার্বত্য চট্টগ্রামের সংরক্ষিত আসনের নারী এমপি বাসন্তী চাকমা সংসদে বিতর্কিত বক্তব্য দিয়েছেন। তার এ মিথ্যা বানোয়াট বক্তব্য দেশে বিদেশে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পার্বত্য এলাকার বাঙ্গালী অধিবাসিদের ভাবমূর্তি নষ্ট করারও একটি অপকৌশল।

বুধবার(৬ মার্চ) রামগড়ে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠানে বক্তারা এ অভিযোগ করেন। সমাবেশ থেকে বাসন্তী চাকমাকে সংসদ সদস্যের পদ ও আওয়ামী লীগ থেকে দ্রুত অপসারণসহ চার দফা দাবি জানানো হয়। একই দাবিতে রামগড় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপিও পেশ করা হয়েছে।

বুধবার সকালে রামগড় পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগের নেতা মোহাম্মদ শাহজাহান কাজী রিপনের নেতৃত্বে একটি বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। সচেতন রামগড় পার্বত্যবাসী ও পার্বত্য অধিকার ফোরামের ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলকারীরা বাসন্তী চাকমার শাস্তি দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগান দেন। বিক্ষোভ মিছিল শেষে রামগড় জালিয়াপাড়া সড়কের পাশে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে বিশাল মানববন্ধন করেন বিক্ষুব্ধ জনতা। পরে বিশাল মানববন্ধনটি প্রতিবাদ সমাবেশে পরিণত হয়।

পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রিয় সভাপতি প্রকৌশলী আব্দুল মজিদের সভাপতিত্বে এ প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রামগড় পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগের নেতা মোহাম্মদ শাহজাহান কাজী রিপন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আব্দুল কাদের, পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. রফিকুল আলম কামাল, পার্বত্য বাঙ্গালী অধিকার ফোরামের কেন্দ্রিয় সভাপতি মো. মাঈন উদ্দিন, বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের মাটিরাঙ্গার সভাপতি মো. কাওসার হোসেন, পার্বত্য অধিকার ফোরামের কেন্দ্রিয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মোকতাদির হোসেন প্রমুখ।
সমাবেশ শেষে এমপি বাসন্তী চাকমার কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। পরে পার্বত্য অধিকার ফোরামের কেন্দ্রিয় সভাপতি মো. মাঈন উদ্দিনের নেতৃত্বে বাসন্তী চাকমাকে সংসদ সদস্যের পদ ও আওয়ামী লীগ থেকে অপসারণসহ চার দফা দাবি সম্বলিত প্রধানমন্ত্রী বরাবার লিখা একটি স্মারকলিপি  রামগড় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে পেশ করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ