র‌্যাবের অভিযানে টঙ্গীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা,নগদ টাকাসহ ভূয়া সাংবাদিক দম্পতি গ্রেফতার

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ র‌্যাবের অভিযানে টঙ্গীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা, নগদ টাকাসহ ভূয়া সাংবাদিক দম্পতিসহ ৪ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

আজ আনুমানিক ভোর সারে ৫ টায় র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, টঙ্গী বাজারের রাজ্জাক প্লাজার সামনে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে আভিযানিক দলটি মাদক ব্যবসায়ী ১) রুবেল আহমেদ (৩৯), ২) মোঃ বশির আহমেদ (২৮) ৩) মোসাঃ জান্নাতুল ফেরদৌস রিবা (১৯), ৪) মোঃ আনিসুর রহমান (২১) কে ৩২,০৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ হাতে-নাতে গ্রেফতার করে।

এসময় তাদের নিকট হতে মাদকদ্রব্য ইয়াবা ক্রয় বিক্রয়ের কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন ব্রান্ডের ০৬ (ছয়) টি মোবাইল ফোন, মাদকদ্রব্য ইয়াবা বিক্রয়ের নগদ ৮,৩৪,৫৪০/- (আট লক্ষ চৌত্রিশ হাজার পাঁচশত চল্লিশ) টাকা, ০১ টি পাসপোর্ট, ০১ টি ব্ল্যাংক চেক, অনলাইন পত্রিকার ০১ টি ভূয়া আইডিকার্ড জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক বাজার মূল্য ১,৫০,০০,০০০/-(এক কোটি পঞ্চাশ লক্ষ মাত্র) টাকা।
জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামী র¦বেল আহমেদ (৩৯) বর্তমানে মেসার্স মিম এন্টার প্রাইজ নামক বেসরকারী কোম্পানীর ম্যানেজার পদে চাকুরী করেন। র¦বেল আহমেদ (৩৯)’কে উক্ত কোম্পানীর মালিক জনৈক রহমান খান রাহুল ইয়াবা ব্যবসার ব্যাপারে প্রস্তাব দেয় এবং রহমান খান রাহুলের মাধ্যমে রুবেল অতি স্বল্পসময়ে বড়লোক হওয়ার স্বপ্নে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। উক্ত রহমান খান রাহুল চট্টগ্রামের রহমতউল্লাহ এর সাথে রুবেলকে মোবাইল ফোনে পরিচয় করিয়ে দেয়।
চট্টগ্রাম হতে রহমতউল্লাহ রাজধানীর রামপুরার বৌবাজার এলাকায় র¦বেল আহমেদ (৩৯)’কে যেতে বলে। রুবেল রামপুরা এলাকায় পৌছালে রহমতউল্লাহর প্রেরিত অজ্ঞাতনামা ইয়াবা বাহক ইয়াবার চালানটি রুবেলের নিকট হস্তান্তর করে। ইয়াবার চালানটি রুবেল রামপুরা থেকে নিয়ে এসে নিজ বাড়িতে থাকে এবং রহমতউল্লাহর পরবর্তী নির্দেশের জন্য অপক্ষো করতে থাকে। পরবর্তীতে রহমতউল্লাহ রুবেলকে তার ইয়াবা ব্যবসার পার্টনার খুলনার জনৈক মোঃ রাজুর পাঠানো প্রতিনিধি ধৃত মোঃ বশির আহমেদ’কে ইয়াবার চালান বুঝিয়ে দিতে বললে রুবেল ইয়াবার উক্ত চালানটি বশিরকে বুঝিয়ে দেয় এবং চালান বাবদ নগদ অর্থ গ্রহণ করে।
গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ বশির আহমেদ (২৮)’কে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে ঢাকার কাকরাইলে অবস্থিত এশিয়ান নিউজ২৪ নামক অনলাইন পোর্টালে রিপোর্টার হিসেবে কাজ করে বলে মানুষের কাছে পরিচয় দেয়। সে সাংবাদিকতার পরিচয় দিয়ে ইয়াবার চালান গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় র¦বেল আহমেদ (৩৯) এর নিকট হইতে গ্রহণ করে খুলনায় জনৈক রাজুর কাছে পৌঁছে দিত। বশির আহমেদ উক্ত অনলাইন পোর্টালের ০১ টি ভূয়া আইডিকার্ড তৈরী করে। যাতে করে রাস্তায় ইয়াবার চালানসহ চলাচলের সময় সে নিজেকে সাংবাদিক বলে পরিচয় দিতে পারে। ধৃত মোঃ বশির আহমেদ (২৮) ইতিপূর্বে বিভিন্ন শহর/গ্রাম অঞ্চলের মেলায় বেলুন, ক্রিকেট ব্যাট ও শিশুদের খেলনা বিক্রয়ের ব্যবসা করত।
স্বল্প সময়ে নগদ অর্থ প্রাপ্তির লোভে সে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে এবং সহযোগী হিসেবে তার স্ত্রী মোসাঃ জান্নাতুল ফেরদৌস রিবা (১৯)’কে ব্যবহার করত। যেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদেরকে ধরলে তারা স্বামী/স্ত্রী একসাথে এই এলাকায় ঘুরতে আসছে বলিয়া জানায়। এইভাবে তারা সুকৌশলে দীর্ঘদিন যাবৎ ইয়াবা ট্যাবলেটের ব্যবসা করে আসতেছে। মোঃ বশির আহমেদ এবং মোসাঃ জান্নাতুল ফেরদৌস রিবা’দ্বয়কে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তারা পরস্পর স্বামী স্ত্রী বলে জানায়।
গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ আনিসুর রহমান (২১) পেশায় একজন বেলুন ব্যবসায়ী। তার এই বেলুনের ব্যবসার সূত্র ধরে বশিরের সাথে পরিচয় হয়। মোঃ বশির আহমেদ (২৮) তার স্ত্রী সহকারে ইয়াবার চালান নিয়ে খুলনা যাওয়ার সময় আনিসুর রহমান তাদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকে। এইভাবে উক্ত চক্রটি চট্টগ্রাম হতে ইয়াবা চালান ঢাকা হয়ে খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরবরাহ করত।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ