যশোর এম এম কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩

Spread the love

মো: আসাদুজ্জামান শাওন, যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ যশোর এম এম কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে তিনজন আহত হয়েছে। আহতদেরকে ২৫০ শয্যার যশোর জেনারলে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হচ্ছে- এম এম কলেজ হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের অনার্স চতুর্থ বর্ষের ছাত্র বাঘারপাড়া উপজেলার খাজুরা গ্রামের ওহাব বিশ্বাসের ছেলে নজিব আহম্মেদ প্রিন্স (২৩), একই বিভাগের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র মাগুরা জেলার সিংড়া গ্রামের নুরুল ইসলাম লষ্করের ছেলে নাবিউল ইসলাম সিমান্ত ও ফিজিক্স মাস্টার্সের ছাত্র সাতক্ষীরা আশাশুনি উপজেলার আশাশুনি গ্রামের কানাইলাল বিশ্বাসের ছেলে দেব্রত বিশ্বাস (২৭)।

আহতদের মধ্যে প্রিন্স ও সিমান্ত যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুলের অনুসারি দুজন সম্পর্কে খালাতো ভাই ও দেব্রত জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রওশন এলাহি শাহির অনুসারি। আহত তিন জনই কলেজের পুরাতন হলে থেকে লেখাপড়া করে।

আহত দেব্রত জানান, সকাল আনুমানিক সাড়ে ৯ টার দিকে এম এম কলেজ পুরাতন হল শাখার বর্তমান সভাপতি রাশেদ ও একই হলের সাবেক সভাপতি আসলামের নেতৃত্বে ৪/৫ জন রুমে ঢুকে হামলা চালিয়ে তাকে মারপিট করে আহত করে।

এদিকে আহত প্রিন্স ও সিমান্ত জানান, তারা সকাল আনুমানিক ১০ টার দিকে বিপুলের নির্বাচনী প্রচারে শহরের চুয়াডাঙ্গা স্ট্যান্ডে যাওয়ার উদ্দেশ্যে আসাদ গেট দিয়ে বেড় হওয়ার সময় হামলার শিকার হন। প্রিন্স ও সিমান্তের দাবি রনি, আক্তার, ও আসাদুলের নেতৃত্বে ৮/১০ জন রড, হকিস্ট্রিক, দা নিয়ে অর্তকিত হামলা চালিয়ে দুজনকে গুরুত্বর জখম করে।

যশোর এম এম কলেজে সম্প্রতি ছাত্রলীগর দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ দেখা দিয়েছে। এর জের ধরে বুধবার এই হামলার ঘটনা ঘটে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ