গোলাপগঞ্জে কিশোরীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা!

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক : গোলাপগঞ্জের শরীফগঞ্জ ইউনিয়নে এক ১৫ বছরের কিশোরীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর ধাওয়া খেয়ে পালানোর সময় আহত হয়েছে এক বখাটে।

বৃহস্পতিবার ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়েরের জন্য লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জানাযায়, বুধবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার শরীফগঞ্জ ইউনিয়নের খাটখাই গ্রামের হতদরিদ্র পান ব্যবসায়ী কটু মিয়ার কন্যা, ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া ভিকটিম (১৫) পাশ্ববর্তী চাচার ঘরে যেতে চাইলে ভাদেশ্বর ইউপির শেখপুর গ্রামের যতিন্দ্র দাসের পুত্র শান্ত দাস (২৫), খাটখাই গ্রামের শফিক মিয়ার পুত্র ললই মিয়া(৩২) ও অজ্ঞাত আরো ২/৩ জন ধর্ষণের উদ্দেশ্যে ভিকটিমের মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক পার্শ্ববর্তী কুশিয়ারা তীরে নিয়ে যান। নদীপাড়ে ভিকটিমকে ধর্ষণের জন্য জোরপূর্বক টানাহেচড়া করলে সে চিৎকার দেয়। তার আর্ত-চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে বখাটেরা পালিয়ে যায়।

এ সময় নদী ভাঙন রোধের ব্লকে পড়ে একজন গুরুতর আহত হন। বর্তমানে সে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম ফজলুল হক শিবলী জানান, ঘটনার সত্যতা যাচাই করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ