ঝালকাঠিতে গুলিবিদ্ধ লাশের গায়ে লেখা ‘আমি ধর্ষক’ ইহাই আমার পরিণতি!

Spread the love

ঝালকাঠি :- ঝালকাঠি জেলার কাঁঠালিয়ায় গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সজল জোমাদ্দার নামে এক যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে উপজেলার বিনাপানি গ্রামের একটি মাঠ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত সজল পার্শ্ববর্তী পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার নদমুলা গ্রামের আবুল হোসেন জোমাদ্দারের ছেলে। সে ভান্ডারিয়া থানার একটি গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি। কাঁঠালিয়া থানার ওসি জানান, দুপুরে বিনাপানি গ্রামের একটি বাগানের পাশের মাঠে সজলের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। কাঁঠালিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাথার দুই পাশে দুটি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে। নিহতের বুকে লেমিনেটিং করা একটি কাগজে লেখা ছিল তার নাম সজল। সে মাদ্রাসা ছাত্রী কারিমা ধর্ষণ মামলার আসামি। ধর্ষণের কারণে তার এই পরিণতি। খবর পেয়ে ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া সার্কেল) মো. মোজাম্মেল হক রেজা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ভান্ডারিয়া ও কাঁঠালিয়া থানা পুলিশ জানায়, গত ১২ জানুয়ারি সকাল ১১টার দিকে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার নদমুলা গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করা হয়। এ মামলায় সজলকে প্রধান আসামি করে ১৪ জানুয়ারি ভান্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। মামলার পর থেকেই সজল জোমাদ্দার নিখোঁজ ছিল বলে তার পরিবার জানিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ