টেকনাফে বিজিবি’র সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা পাচারকারী নিহত

Spread the love

কক্সবাজারের টেকনাফে বিজিবি’র অভিযানের সময় বন্দুকযুদ্ধে এক ইয়াবা পাচারকারী নিহত হয়েছে।

টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার জানান, টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) এর একটি মাদকবিরোধী বিশেষ টহল দল দমদমিয়ার ওমরখাল এলাকায় টহলে গমন করে। আনুমানিক ০৪০৫ ঘটিকায় নৌকায় করে কয়েকজন লোককে নাফ নদী হতে ওমরখালের প্রবেশমুখ দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করতে দেখতে পায়।

উক্ত লোকজনকে থামার জন্য নির্দেশ দিলে তারা টহলদলের উপর অতর্কিতভাবে গুলি বর্ষণ করতে থাকে এবং ধারালো অস্ত্র নিয়ে আক্রমন করে। এতে বিজিবি’র টহলদলের একজন সদস্য আহত হয়। এ সময় বিজিবি আতœরক্ষার্থে কৌশলগত অবস্থান নিয়ে পাল্টা গুলি বর্ষন করে।

উভয় পক্ষের মধ্যে প্রায় ১০-১৫ মিনিট গুলি বিনিময় চলে। অস্ত্রধারী চোরাকারবারীরা গুলি করতে করতে খালের কিনারা দিয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে গুলির শব্দ থামার পর ভোরের আলোতে টহলদলের সদস্যরা এলাকা তল্লাশী করে ০১ (এক) জন নারীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নৌকার মধ্যে পড়ে থাকতে দেখতে পায় এবং তার সাথে থাকা ব্যাগের মধ্যে আনুমানিক ১০,০০০ (দশ হাজার) পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। একই সাথে টেকনাফ মডেল থানায় খবর দেয়া হয় ও পুলিশের সহযোগিতায় গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে কর্তব্যরত ডাক্তার উক্ত ব্যক্তিকে মৃত ঘোষনা করেন। এছাড়াও ঘটনাস্থল হতে ০৩ টি লোহার ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়। গুলিবিদ্ধ ব্যক্তির ভ্যানিটি ব্যাগ হতে নি¤েœ বর্ণিত পরিচয় পাওয়া যায় ঃ
ক। মোছাঃ রুমানা আক্তার, স্বামী-বদরুল ইসলাম, গ্রাম-রাম্বীবিল, থানা-মংডু, জেলা-আকিয়াব, মায়ানমার (বর্তমান ঠিকানা ঃ রুম নম্বর-৪০, ব্লক নম্বর-সি/৬, লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প)।

উল্লেখ্য, আহত বিজিবি সদস্যকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনী কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ