basic-bank

জেলেদের জালে চুয়েট ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার!

আমির হামজা, রাউজান, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:সাগরে পড়ে নিখোঁজ হওয়ার প্রায় ২২ ঘণ্টা পর চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ১৩তম ব্যাচের শিক্ষথী নাকিব মোহাম্মদ খাব্বাবের মৃতদেহ বুধবার দুপুর ১টা সময় পাওয়া যায়।

১৬ আগস্ট নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাস্থলহতে দুই-তিন কিলোমিটার দূরে জেলেদের জালে খাব্বাবের মরদেহ খোঁজ মিলেন। এই বিষয়টি নিশ্চিত করে চুয়েটের উপ-ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. জি. এম সাদিকুল ইসলাম জানান জেলেদের জালে নাকিব মোঃখাব্বাবের মরদেহ পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার বিকেল তিনটার দিকে সীতাকুণ্ডের মুরাদপুর গুলিয়াখালী সৈকতে সহপাঠীদের সঙ্গে বেড়াতে যান খাব্বাব। তার সঙ্গে ছিলেন ইমতিয়াজ, নিশাত, পিউলি, সিঁথি, তমাল ও আশিক। তারা দুটি নৌকা ভাড়া করে সাগরে ঘুরে বেড়ান। খাব্বাব ও ইমতিয়াজের নৌকায় স্থানীয় দুজন নারীও ছিলেন। বাকি পাঁচ শিক্ষার্থী অন্য নৌকায় ছিলেন।

একপর্যায়ে দুই নারী সাগরে পড়ে যান। তখন সাঁতার জানা ইমতিয়াজ ঝাঁপিয়ে পড়েন তাদের উদ্ধারের জন্য। সাগর উত্তাল থাকায় একসময় খাব্বাবও পড়ে যান সাগরে। ইমতিয়াজ দুই নারীসহ তাকে আঁকড়ে ধরেন। কিন্তু সাঁতার না জানায় খাব্বাব হাল ছেড়ে দিলে তলিয়ে যান। দুই নারীর মধ্যে একজনকে ইমতিয়াজ ও অন্যজনকে শেষপর্যন্ত জেলেরা উদ্ধার করতে সক্ষম হন।

খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে উদ্ধারে করার কাজে যোগদেন ফায়ার সার্ভিসের দুটি টিম অভিযান পরিচালনা করে। পরদিন বুধবার সকাল থেকে আবারও নাকিব মোঃখাব্বাবের উদ্ধারে অভিযান শুরু করা হয়। এর মধ্যেই দুপুর একটা ৪০ মিনিটের দিকে জেলেদের জালে তার মরদেহ পাওয়া যায়। কুমিল্লার গ্রামের তার বাড়ি।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।