সাভারে বহু মামলায় অভিযুক্ত যুবলীগ নেতার সীমাহীন চাঁদাবাজী

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা ক্রাইম ডট কম; সাভারের আশুলিয়ায় আঞ্চলিক সড়কে চলাচলরত অটোবাইক / ইজি বাইক থেকে চাঁদা তুলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে স্থানীয় এক ঝুট ব্যবসায়ী ও বহিস্কৃত যুবলীগ নেতা। সে আশুলিয়ার কুমকুমারী এলাকার শুকুর আলী মুন্সির ছেলে শফিক মৃধা।

এ ঘটনায় অটোরিকসা চালকরা একজোট হয়ে শনিবার সকালে ওই ঝুট ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে। সম্প্রতি আশুলিয়ার আউকপাড়া থেকে এক কলেজ ছাত্রীকে অপহরণের সাথে জড়ির থাকার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর পরিবার। বর্তমানে তিনি ওই মামলার দুই নাম্বার আসামী হিসেবে অভিযুক্ত হলেও প্রকাশ্যে চাদা তোলার ঘটনায় এলাকাবসী ক্ষেভ প্রকাশ করেছে। পুলিশ তাকে পলাতক দেখিয়ে গ্রেফতার করছে না বলেও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিনিধিরা অভিযোগ করেছেন।

উক্ত অপহৃত ছাত্রীকে গত বৃহস্পতিবার সদর ঘাট থেকে উদ্ধার করা হয়। এলাকাবাসী জানান, সাভারের আনোয়ার জং আশুলিয়া আঞ্চলিক সড়কে প্রতিদিন চলাচল করে প্রায় কয়েক’শ অটোরিকসা। আঞ্চলিক সড়কে অটো রিকসা চলার কারনে আনোয়ার জং আশুলিয়া সড়কের চারাবাগ এলাকায় প্রত্যেকটি অটোরিকসা থেকে ৩০ টাকা করে চাঁদা তোলেন । চাঁদার টাকা না দিলে অটোচালকদের অটোরিকসা আটক করে রাখেন বলে অভিযোগ আটো চালকদের। এভাবে প্রত্যেক মাসে মাসে সে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

এলাকাবাসীরা জানান, কয়েকদিন আগে ছাত্রী অপহরন ঘটনার সাথে জড়িত শফিক মৃধা আশুলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহবায়ক নুরুজ্জামানকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর তার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের একটি গ্রুপ তৎপর হয়ে উঠে। প্রকাশ্যে নুরুজ্জামনকে তাকে হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকি দেয়ায় পুলিশের নিকট অভিযোগ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রতিপক্ষ ছাত্রলীগের এক নেতা। এছাড়া পূর্ব শক্রুতার জের ধরে গত কয়েক মাস আগে দোসাইদ একে স্কুল এ্যান্ড কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ফজলে হোসেন সায়মন ও এলাকার এক ইউপি মিম্বারকে হত্যার হুমকি দেয়ার ঘটনায় তার বিরুদ্ধে পুলিশ ব্যবস্থা গ্রহন করে। এদিকে ওই ঝুট ব্যবসায়ীর ভাই আতাউর মৃধা চাঁনগাও এলাকায় জামান নামের এক যুবককে হত্যার অভিযোগে বর্তমানে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত হয়ে কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন।

এবিষয়ে আশুলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহবায়ক নুরুজ্জামান ঢাকা ক্রাইম ডট কম কে বলেন, ছাত্রলীগের ওই ঝুট ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। এছাড়া তিনি এলাকায় প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে চলা ফেরা করে মানুষকে ভয়ভীতি দেখায় ও স্থানীয় সড়কগুলোর যানবাহন থেকে তার বাহিনীর মাধ্যমে চাঁদা তুলে বেড়ায়। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তিনি স্থানীয় প্রশাসনকে অনুরোধ জানান।

এ বিষয়ে ঢাকা ১৯ আসনের সংসদ সদস্য ডা.এনামুর রহমান ঢাকা ক্রাইম ডট কম কে বলেন, অটোরিকসা থেকে চাঁদা তোলার অভিযোগ পাওয়ায় পুলিশকে নিদের্শ দিয়েছি তাকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনতে।

আশুলিয়া থানা সূত্রে জানা যায়, তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজী , অপহরন সহ কয়েকটি মামলা রয়েছে। তাকে গ্রেফতারে পুলিশ ও র‌্যাবের অভিযান চলছে।..শেষ।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ