আজ শাহজালালে আবারো স্বর্ণসহ সিভিল এভিয়েশনের নিরাপত্তা রক্ষী গ্রেফতার

Spread the love

শুল্ক গোয়েন্দার কর্মকতাগণ আজ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৫৮০ গ্রাম স্বর্ণসহ সিভিল এভিয়েশন নিরাপত্তা কর্মী ও রিয়াদ ফেরত একজন যাত্রীকে হাতেনাতে আটক করেছে।

আটককৃত দুইজনের মধ্যে একজন হলেন সিভিল এভিয়েশন অথরিটি বাংলাদেশ (CAAB) এর নিরাপত্তা রক্ষী এবং অপরজন হলেন রিয়াদ হতে ঢাকায় আগত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এর বিজি০৪০ ফ্লাইটের যাত্রী।

ARE YOU LOOKING FOR YOUR OWN PIECE OF PARADISE?

Prominent Living Ltd is a premier licensed real estate company in Bangladesh with its own unique identity.

Ongoing Project | Prominent Tower
Location: Sector 3, Uttara, Dhaka, Bangladesh.
Type: Commercial Building | 01716 638059, 01726 265195

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুল্ক গোয়েন্দা জানতে পারে যে আজ ০৮/১১/১৭ তারিখে রিয়াদ হতে ঢাকাগামী বিমান বাংলাদেশের ফ্লাইট নং বিজি ০৪০ এর মাধ্যমে স্বর্ণ চোরাচালান সংঘটিত হবে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আনুমানিক দুপুর ৩.০০ ঘটিকা হতে শুল্ক গোয়েন্দার দল বিমানবন্দরের বোর্ডিং ব্রিজ, ব্যাগেজ বেল্ট, এপ্রোন ও ইমিগ্রেশনসহ বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নেয়।

আনুমানিক দুপুর ৩:১৫ ঘটিকায় উক্ত বিমান শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করলে শুল্ক গোয়েন্দা তাদের নজরদারি বৃদ্ধি করে এবং বিমান থেকে যাত্রী নামার সময় ঐ যাত্রীকে শনাক্ত করে গোপনে অনুসরণ করতে থাকে।

অনুসরণের একপর্যায়ে রিয়াদ হতে আগত যাত্রীকে ইমিগ্রেশন পয়েন্টে শুল্ক গোয়েন্দা জিজ্ঞাসাবাদ করে।

জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানান বিমানবন্দরে কর্মরত রেজাউল নামক একজনের কাছে ০৫টি স্বর্ণবার হস্তান্তর করবে।

পরবর্তিতে তার কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে ০৫ নং ব্যাগেজ বেল্টের সামনে টয়লেটের ভিতর স্বর্ণ হস্তান্তরের সময় যাত্রীসহ সিভিল এভিয়েশনের সিকিউরিটিকে হাতেনাতে আটক করা হয়।

গোপন সংবাদ অনুযায়ী রেজাউলকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তাদের কাছ থেকে ০৫ টি স্বর্ণবার উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে যাত্রীর মোবাইলে নিরাপত্তা কর্মীর ছবি পাওয়া যায়।

রিয়াদ ফেরত যাত্রীর পাসপোর্টের তথ্যানুযায়ী তার নাম: কুদ্দুস শিকদার, পিতা: আব্দুস সামাদ শিকদার, সিরাজদিখান, মুন্সিগঞ্জ ।

আটক সিভিল এভিয়েশন অফিসের আইডি কার্ড অনুযায়ী তার নাম: রেজাউল করিম, পিতা: মৃত মোহাম্মদ আলী মন্ডল। তার গ্রাম: বাদে কলেমশর, পোঃ বাদে কলমেরশর , থানা: জাতীয় বিশবিদ্যালয় ১৭০৪, গাজীপুর সদর,গাজীপুর।

তিনি সিভিল এভিয়েশনের নিরাপত্তা গার্ড হিসেবে ২২ বছর ধরে কর্মরত আছেন। তিনি সিভিল এভিয়েশনের সিকিউরিটি পাশ নিয়ে এই স্বর্ণ চোরাচালানে সহায়তা করছিলেন।

আটক দুই ব্যক্তিকে কাস্টমস আগমনি হলের ব্যাগেজ কাউন্টারে আনা হয় এবং বিমানবন্দরে কর্মরত বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে কাগজ ও রাবারের ফিতায় মোড়ানো ০৫টি স্বর্ণবার ১১৬ গ্রাম ওজনের মোট (৫৮০ গ্রাম) স্বর্ণ আটক করা হয়।

আটককৃত স্বর্ণবারগুলোর আনুমানিক বাজারমূল্য প্রায় ৩০,০০,০০০/- (ত্রিশলক্ষ) টাকা।

আটক স্বর্ণ চোরাচালানের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

চোরাচালানের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত এই দুই ব্যক্তিকে বিমানবন্দর থানায় সোপর্দ করা হবে এবং উদ্ধারকৃত স্বর্ণবার রাষ্ট্রীয় গুদামে জমা দেয় হবে।

শুল্ক গোয়েন্দার কঠোর নজরদারির পরিপ্রেক্ষিতে আজ বিমানবন্দরে সোনা চোরাচালান করার সময় সিভিল এভিয়েশনের এই নিরাপত্তা কর্মীসহ এই দুইজনকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হলো।

গতকাল মঙ্গলবার শাহজালাল বিমানবন্দরে একই কারণে বিমানের নিরাপত্তা কর্মীসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছিল শুল্ক গোয়েন্দা।

তার আগে শুল্ক গোয়েন্দা বিমানের ট্রাফিক সুপারভাইজারকে স্বর্ণসহ হাতেনাতে আটক করে।

পরপর এসব চেরাচালানের ঘটনাকে গুরুত্বসহকারে দেখছে শুল্ক গোয়েন্দা এবং যথাযথ পদক্ষেপ নিবে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ