রাজধানীতে শুল্ক গোয়েন্দার অভিযানে ১৭ লক্ষ টাকা মূল্যের সোনার মোবাইল সেট উদ্ধার!

Spread the love

ডেক্স নিউজ; শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর গুলশান, বসুন্ধরা সিটি মার্কেট ও ধানমন্ডি এলাকায় যুগপৎভাবে অবৈধভাবে আমদানিকৃত মোবাইল ফোন সেট আটকে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে অত্যাধুনিক ড্রোনসহ বিপুল পরিমাণ মোবাইল ফোন আটক হয়েছে।

ARE YOU LOOKING FOR YOUR OWN PIECE OF PARADISE?

Prominent Living Ltd is a premier licensed real estate company in Bangladesh with its own unique identity.

Ongoing Project | Prominent Tower
Location: Sector 3, Uttara, Dhaka, Bangladesh.
Type: Commercial Building | 01716 638059, 01726 265195

শুল্ক গোয়েন্দার অভিযানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ফোর্স এবং বিটিআরসি কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

বসুন্ধরা মার্কেটের ০৯ টি দোকান, গুলশান এভিনিউর ০১ টি ও ধানমন্ডির অরচার্ড পয়েন্টে ০১ টি সহ মোট ১১ টি দোকানে এই অভিযান পরিচালিত হয়।

এই অভিযানে চোরাইপথে আনীত আইফোন১০ সহ অন্যান্য মূল্যবান ব্র্যান্ডের প্রায় ২ শতাধিক মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

এইসব ব্র্যান্ডের মধ্যে আইফোন, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৮, নোকিয়া এক্স৩, ব্ল্যাকবেরি রয়েছে।

আটককৃত মোবাইল সেটগুলোর মধ্যে আইফোন১০ —১৫টি, অন্যান্য মডেলের আইফোন — ১১৮টি, এপল আইপ্যাড — ০৮ টি, স্যামসাং — ৫৮টি, নোকিয়া — ০২ টি, VERTU ব্র্যান্ডের — ০১ টি এবং ব্ল্যাকবেরি — ০২ টি রয়েছে।

আটক মোবাইলের সম্মিলিত মূল্য প্রায় ০১ (এক) কোটি টাকা।

দোকানগুলোর মধ্যে ফোনএক্সচেঞ্জ’ থেকে বেশি সংখ্যক চোরাই মোবাইল ফোনসেট উদ্ধার করা হয়। গুলশান ও বসুন্ধরা মার্কেটের ফোনএক্সেচেন্জের দুটো শোরুম থেকে মোট ৮৮টি দামি সেট উদ্ধার করা হয়েছে।

বিশেষভাবে উল্লেখ্য যে, ফোনএক্সচেঞ্জ এর গুলশান শোরুম থেকে একটি ড্রোন (ব্র্যান্ড DJI, Model: GL200A) উদ্ধার করা হয়েছে। ড্রোন বর্তমানে আমদানি নিষিদ্ধ পণ্য।

একইসাথে, এই শোরুম থেকে VERTU ব্র্যান্ডের একটি এক্সক্লুসিভ মোবাইল ফোনসেট আটক করা হয়। এই সেটটি স্বর্ণ দিয়ে মোড়ানো এবং এর স্ক্রিনটি সলিড Sapphire –নীলকান্তমণির তৈরি। বাংলাদেশি টাকায় এই ফোনের মূল্য প্রায় ১৭ লক্ষ টাকা।

কাগজপত্র দেখাতে না পারায় ধারণা করা হচ্ছে এসব ফোনসেট অবৈধপথে এবং শুল্ক না দিয়ে আনা হয়েছে।

বিটিআরসির কর্মকর্তাগণ ঘটনাস্থলে আটককৃত সেটসমূহের আইএমইআই পরীক্ষা করে এগুলো নিবন্ধিত নয় বলে প্রত্যয়ন করেন।

এই সেটগুলোতে শুধুমাত্র রাজস্ব ফাঁকি-ই দেয়া হয়নি, আইএমইআই নিবন্ধিত না থাকায় এগুলো রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

বিটিআরসি-র নিবন্ধন না থাকার কারণে এগুলো কোন সরকারি সংস্থা আইনগতভাবে ট্র্যাক করতে পারে না।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনির নজরদারি এড়িয়ে এই সেটগুলো ব্যবহার করে যেকোন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ড সংঘটিত হতে পারে।

আমদানি নীতি আদেশ, ২০১৫-১৮ অনুযায়ী, বাংলাদেশে যেকোন মোবাইল ফোনসেট বাণিজ্যিকভাবে আমদানি করতে হলে বিটিআরসি থেকে সেগুলোর আইএমইআই নম্বর পূর্বেই নিবন্ধিত করার বিধান রয়েছে।

উল্লেখ্য যে, আইফোন১০ মোবাইল সেটটির ব্যবহার এখনো বাংলাদেশে দাপ্তরিকভাবে উদ্বোধন করা হয়নি। বিটিআরসি থেকেও আইফোন১০ এর কোন নিবন্ধন প্রদান করা হয়নি। অথচ বাণিজ্যিক বিপণিবিতানগুলোতে এই সর্বশেষ ফোন অবাধে কেনাবেচা হচ্ছে।

একইসাথে উল্লেখ্য, মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশন কর্তৃক রিট পিটিশন নং-৮৪১ (২০১৭) এর প্রদানকৃত নির্দেশনানুযায়ী চোরাইপথে এ অবৈধভাবে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আনীত সকল মোবাইল ফোনসেট উদ্ধার ও আটকের বিষয়ে শুল্ক গোয়েন্দাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মহামান্য আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী আজ এই যৌথ উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা হলো।

অবৈধভাবে আনীত মোবাইল সেট আটকের বিরুদ্ধে শুল্ক গোয়েন্দার অভিযান শুরু হলো।

আগামীতে এই ধরনের অভিযান নিয়মিতভাবে পরিচালনা করা হবে এবং আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজকের অবৈধ মোবাইল ফোন ও ড্রোন আটকের ঘটনায় শুল্ক আইনে মামলা দায়ের করা হবে।
..

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ