প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পরমাণু হামলার অবৈধ নির্দেশ মানবো না

Spread the love

আন্তর্জাতিক ডেস্ক; মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ‘অবৈধভাবে’ পরমাণু হামলা চালানোর কোনো নির্দেশ দিলে তা মানবেন না বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পরমাণু অস্ত্রসংক্রান্ত শীর্ষ সামরিক কমান্ডার।

বিমানবাহিনীর জেনারেল জন হ্যাইটেন যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্র্যাটেজিক কমান্ডের (স্ট্রাটকম) কমান্ডার। পরমাণু অস্ত্রের বিষয়টি তিনিই দেখভাল করেন। কানাডার নোভা স্কটিয়ায় হ্যালিফ্যাক্স ইন্টারন্যাশনাল সিকিউরিটি ফোরামের এক অনুষ্ঠানে তিনি পরমাণু হামলার বিষয়ে এ মন্তব্য করেন।

পরমাণু হামলা চালানোর বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এখতিয়ার নিয়ে দেশটির সিনেট প্রশ্ন তোলার কয়েক দিনের মাথায় এই মন্তব্য করলেন দেশটির এই জেনারেল। বিষয়টি নিয়ে তিনি বেশ চিন্তা করেছেন বলে জানান জন হ্যাইটেন।

এক প্রশ্নের জবাবে জেনারেল হ্যাইটেন বলেন, ‘আমার মনে হয়, অনেকে আমাদের বোকা মনে করে। কিন্তু আমরা বোকা নই। আমরা এই বিষয়গুলো নিয়ে অনেক চিন্তাভাবনা করি। যখন আপনার ওপর এ ধরনের দায়িত্ব বর্তে, তখন আপনি চিন্তা না করে থাকবেন কী করে?’

পরে ফেসবুকে পোস্ট করা এক বার্তায় জন হ্যাইটেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্র্যাটেজিক কমান্ডের কমান্ডার হিসেবে তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্টকে পরামর্শ প্রদান করেন। প্রেসিডেন্ট তাঁকে আদেশ দেবেন কী করতে হবে। যদি প্রেসিডেন্টের নির্দেশ ‘বেআইনি’ হয়, তবে তিনি তা প্রেসিডেন্টকে জানাবেন।

জেনারেল হ্যাইটেন আরও বলেন, একটি ‘অবৈধ’ নির্দেশ কার্যকর করার মানে হলো আপনাকে কারাগারে যেতে হবে, এমনকি আপনাকে বাকি জীবন জেলে কাটাতে হবে।

সামরিক কর্মকর্তার বক্তব্য নিয়ে পেন্টাগন তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি।

ওয়াশিংটনে ক্যাপিটল হিলে গত মঙ্গলবার সিনেটের পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক কমিটির শুনানি হয়। এতে কয়েকজন সিনেটর আশঙ্কা ব্যক্ত করেন, পরমাণু হামলার বিষয়ে ট্রাম্প দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয় দিতে পারেন। ৪০ বছরের মধ্যে এই প্রথম পরমাণু অস্ত্রের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের এখতিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তুলল মার্কিন কংগ্রেস।

গত মাসে সিনেটের পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক কমিটির রিপাবলিকান চেয়ারম্যান বব ক্রুকার অভিযোগ করেছিলেন, ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রকে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ