সদ্য প্রাপ্ত
সারাদেশে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজধানীতে ডিবি পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবাসহ ৪ মাদক সম্রাট গ্রেফতার গোপালগঞ্জে ৫ কেজি গাঁজাসহ স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার ঝিনাইগাতীতে খাদ্যগুদামের নিরাপত্তা প্রাচীর সংস্কারে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ যশোরে র‌্যাবের সঙ্গে ক্রসফায়ারে ৩ মাদক ব্যবসায়ী নিহত যশোরে গনপিটুনিতে এক ডাকাত নিহত কাশিয়ানীতে রাজপাট কলেজে ব্যবহারিক পরীক্ষায় ৫০০ টাকা করে আদায়ের অভিযোগ বেনাপোল সীমান্ত থেকে ২৩ পিস স্বর্ণের বার উদ্ধার কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শীর্ষ সন্ত্রাসী হামিদুল বাহিনী প্রধান হামিদুল নিহত রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বিদেশী পিস্তল-গুলিসহ আটক ১

ফরিদপুরে ছেলের হাতে বাবা খুন

Spread the love

ফরিদপুর প্রতিনিধি; গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নে ছেলের হাতে বাবা খুন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত বাবার নাম ওয়াহেদ মোল্লা (৭৫)। ছেলের নাম কালু মোল্লা (২৮)।

বাবা ওয়াহেদকে খুন করার অভিযোগে গতকাল রাতেই ছেলে কালুকে আটক করে পুলিশ। ওয়াহেদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এলাকাবাসীর জানান, ওয়াহেদ ভিক্ষা করতেন। তাঁর ছেলে কালু মাদকাসক্ত ছিলেন। তিনি মাদকদ্রব্য বিক্রিও করতেন। গত রাতে বাবা-ছেলে এক ঘরেই ছিলেন। গভীর রাতে গোঙানির শব্দ শুনে প্রতিবেশীরা ওয়াহেদের ঘরে আসেন। তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। তাঁর গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন ছিল। এ অবস্থায় প্রতিবেশীরা পুলিশকে খবর দেয়।

সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন বলেন, কালুকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে বাবাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন তিনি।

পুলিশ জানায়, গত রাতে বৃদ্ধ ওয়াহেদ তিন-চারবার শৌচাগারে যান। এতে কালুর ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে। একপর্যায়ে কালু ক্ষুব্ধ হয়ে বাবার গলা টিপে ধরেন। তিনি তাঁর বাবার গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে পোচ দেন। এতে ওয়াহেদের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় মামলা করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ