রাবি সিন্ডিকেট মগদের দখলে

Spread the love

সিরাজী এম আর মোস্তাক; রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটে মায়ানমারের মগজাতি প্রাধান্যলাভ করেছে। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় রোহিঙ্গাদের ওপর মগদের আক্রমণের তারিখ বিষয়ে প্রণীত একটি প্রশ্ন প্রসঙ্গে রাবি সিন্ডিকেট (৪৭৪তম সভায়) প্রশ্ন প্রণয়নকারী দুজন শিক্ষককে কঠিন সাজা দিয়েছে। প্রশ্নটি ছিল, মুসলমান রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা সশস্ত্র হামলা চালায় কবে? রাবি সিন্ডিকেট এ প্রশ্নটিকে সাম্প্রদায়িক বিবেচিত করেছে। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে প্রশ্নকারী শিক্ষকদের বিরূদ্ধে সাজা কার্যকর করেছে।

মায়ানমারের মগজান্তা তাদের অনুসৃত বৌদ্ধ ধর্মের পবিত্রনীতি (জীব হত্যা মহাপাপ) লঙ্ঘন করে গত ২৫শে আগষ্ট রাখাইন প্রদেশস্থ আরাকানের রোহিঙ্গাদের ওপর নিষ্ঠুর গণহত্যা শুরু করেছে। আরাকানের প্রাচীন ইতিহাস উপেক্ষা করে তারা রোহিঙ্গাদেরকে অবৈধ বাঙ্গালি অভিবাসী অভিহিত করেছে। লাখ লাখ অসহায় রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশ সীমানায় পুশব্যাক করে আমাদের সার্বভৌমত্বে আঘাত করেছে। রোহিঙ্গাদের ফেরত প্রসঙ্গে তামাশার খেলা খেলছে।

ARE YOU LOOKING FOR YOUR OWN PIECE OF PARADISE?

Prominent Living Ltd is a premier licensed real estate company in Bangladesh with its own unique identity.

Ongoing Project | Prominent Tower
Location: Sector 3, Uttara, Dhaka, Bangladesh.
Type: Commercial Building | 01716 638059, 01726 265195

এমতাবস্থায় মগদের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে বিক্ষোভ হয়েছে। অথচ বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ তথা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটে মানবতাবিরোধী মগপন্থি প্রেতাত্মারা প্রাধান্যলাভ করেছে। একটি সাধারণ প্রশ্ন ইস্যুতে দুজন নিরীহ শিক্ষককে কঠিন সাজা দিয়েছে। এটি বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বে সুস্পষ্ট আঘাত।

রাবি সিন্ডিকেটে মগপন্থি রাজাকার কীভাবে প্রাধান্য পেল, তা খতিয়ে দেখা উচিত। তা নাহলে, তারা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বে আঘাতকারী মায়ানমার জান্তার সাথে গোপন আতাঁত করতে পারে। দেশকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে।

অতএব মাননীয় রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। অচিরেই রাবি সিন্ডিকেট মগদের প্রেতাত্মামুক্ত করুন। রাবি সিন্ডিকেটে মগপন্থি সদস্যদের সদস্যপদ বাতিল করে দেশপ্রেমিক সদস্যদের নির্বাচিত করুন।

লেখক;  শিক্ষানবিশ আইনজীবি, ঢাকা।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ