জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

Spread the love

ডেস্ক নিউজঃ জাতীয় জরুরি নম্বর ৯৯৯ এ কল করলে মূহুর্তেই পাওয়া যাবে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও অ্যাম্বুলেন্স সেবা। প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ আজ মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় জাতীয় এই জরুরি সেবাটি উদ্বোধন করেন।

আব্দুল গণি রোডস্থ ডিএমপি’র ক্রাইম কমান্ড এন্ড কন্ট্রোল সেন্টারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা  জাতীয় জরুরি সেবা-৯৯৯ কেন্দ্রের ফলক উন্মোচন করেন। এরপর তিনি ৯৯৯ এর কল সেন্টার পরিদর্শন করেন। ফলক উন্মোচন ও কল সেন্টার পরিদর্শনের পর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন। বক্তব্যের পর তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে ৯৯৯ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন। এই জাতীয় জরুরি সেবাটি এখান থেকেই বাংলাদেশ পুলিশের ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত হবে।

তিনি আরো বলেন, আমেরিকায় কোথাও আগুন লাগলে জরুরি নম্বরে ফোন করা হলে সঙ্গে সঙ্গে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নেভায়। বাংলাদেশেও এরকম একটি সেবা উদ্বোধন করা হলো। যাতে একটি কলেই পুলিশের সেবা পাওয়া যায়। ৯৯৯ নম্বরে ডায়াল করে দেশের যেকোনো জায়গা থেকে পুলিশের সাহায্য পাওয়া যাবে।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সজীব ওয়াজেদ বলেন, এই সার্ভিসের মাধ্যমে উন্নত দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও এখন মুহূর্তের মধ্যেই পুলিশের সহায়তা পাওয়া যাবে।

আপনার প্রয়োজনে ৯৯৯ নম্বরে কল করলেই পেয়ে যাবেন পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও এ্যাম্বুলেন্স এর সেবা। এই ৯৯৯ নম্বরটি সম্পূর্ণ ‘টোল ফ্রি’। কোন প্রকার খরচ ছাড়ায় জাতীয় জরুরি সেবা থেকে সেবা নেয়া যাবে। ২৪ ঘন্টায় সেবা দিতে প্রস্তুত এই কল সেন্টারের দায়িত্বে থাকা দক্ষ ও প্রশিক্ষিত বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা।

ইন্সপেক্টর জেনারেল অব বাংলাদেশ পুলিশ এ কে এম শহীদুল হকের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক  এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ