বাম্পার ফলনের স্বপ্ন দেখছেন ঝিনাইগাতীর কৃষকেরা

Spread the love

নাঈম ইসলাম, শেরপুর জেলা প্রতিনিধি: গত বছরে দু’দফায় ফসল হারিয়ে চলতি মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলনের স্বপ্ন দেখছেন শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার কৃষকেরা। হিমেল হাওয়া ও শৈত্য প্রবাহে মাঘের শীত উপেক্ষা করে কৃষকেরা এখন বোরো আবাদ পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। বিস্তীর্ণ এলাকার মাঠজুড়ে আবাদের ধুম চলছে। ভোরের আলো ফুটতেই কোমর বেঁধে ফসলের মাঠে নেমে পড়ছেন কৃষকেরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, কুয়াশায় ঢাকা শীতের সকালে জমিতে সেচ,সার,কীটনাশক দেওয়ার কাজ চলছে পুরোদমে। আবার কোন কোন ক্ষেতে বোরো ধান নিড়ানীর কাজও চলছে। পুরুষ শ্রমিকের পাশাপাশি আদিবাসী নারী শ্রমিকেরাও বোরো আবাদের কাজ করছেন।
উপজেলার পাগলারমুখ গ্রামের কৃষক মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, গত বছর বোরো ও আমন ধান বন্যার পানিতে নষ্ট হয়েছে। ওই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এবারও ২ একর জমিতে বোরো ধান রোপন করেছি।নয়াগাঁও গ্রামের কৃষক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এবার তিনি ৩একর জমিতে বোরো আবাদ করেছেন।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এবার বোরো মৌসুমে ১৪ হাজার ৭শ’ ২৮ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯ হাজার ২শ’ ৪৯ হেক্টর জমিতে উচ্চ ফলনশীল (উফশী), ৫ হাজার ৪শ’ ৭৭ হেক্টর জমিতে হাইব্রীড ও ২ হেক্টর জমিতে স্থানীয় জাতের বোরো ধান চাষের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আব্দুল আওয়াল বলেন, আবহাওয়া ও পরিবেশ অনুকলে থাকলে চলতি মৌসুমে বোরো আবাদ লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ