কুষ্টিয়া ভেড়ামারায় কলেজ ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

Spread the love

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী, এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস মীম’র (১৮) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। সে ভেড়ামারা উপজেলার সাতবাড়ীয়া গ্রামের দুবাই প্রবাসী আলতাফ হোসেনের মেয়ে।

বুধবার বিকালে তার নিজবাড়িতে ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষনা দেয়। পরে ভেড়ামারা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

এদিকে মিমের এই রহস্যজনক মৃত্যু কোন মতেই মানতে পারছেন না তার সহপাঠীরা। গত ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের শারিরিক কসরত ও কুচকাওয়াজে ভেড়ামারা কলেজের মনোমুগ্ধ কর ডিসপ্লেতে সে অংশ নিয়েছিল বলেও জানাগেছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, বুধবার দুপুরে নিহত জান্নাতুল ফেরদৌস মিম কে বাসায় একা রেখে তার মাএকটি দাওয়াতের অনুষ্ঠানে যায় । বিকেলে বাড়ি এসে দেখে সদা হাস্যজ্জল মিমের দেহ ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার করতে থাকে । পরে আশপাশের লোকজন এসে উদ্ধার করে তাকে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করে।

তার এক সহপাটি কাজল জানান, মিম এভাবে মারা যেতে পারে তা আমাদের বিশ্বাস হচ্ছে না। আর মিম কে কেনই বা বাসায় একা রেখে যাবে তার মা । তবে হাসপাতাল চিকিৎসক মিমের মৃত্যু নিশ্চিত করলে ওই সময় মিমের মা পাশে থাকলেও মেয়ের মৃত্যুকে স্বাভাবিক হিসেবে নিয়ে সবার সাথে স্বাভাবিক ভাবেই কথা বলছিলেন। এতে মিমের সহপাটিদের মধ্যে আরো রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

ভেড়ামারা থানা ভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনার সত্যতা নিশ্চত জানান । সে আত্মহত্যা করছে ।পারিবারিক ভাবে তেমন কোন অভিযোগ নেই। বিধায় লাশ ময়না তদন্ত ছাড়াই দাফন কাজ সম্পর্ণ করার প্রস্তুতি নিয়েছে নিহতর পরিবার।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ