রাজধানীর বাড্ডায় ডিবি পুলিশের সাথে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলি; নিহত ১

Spread the love

ডেস্ক নিউজঃ রাজধানীর বাড্ডার আফতাবনগর আবাসিক এলাকায় ঢাকা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সঙ্গে গোলাগুলিতে মোঃ সাফায়াত তামরিন ওরফে তানভির ওরফে রনি  (৩০) নামে এক সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে।

সন্ত্রাসীরা ৯মে ২০১৮ তারিখ বুধবার রাত ০৯.২০টায় বাড্ডা এলাকায় ডিস ব্যবসায়ী বাবুকে গুলি করে হত্যা করে। হত্যার পর  মোটর সাইকেলযোগে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতার সহায়তায় তিনজনকে  আটক করে ডিবি (উত্তর) বিভাগ। আটককৃতরা হল- সাফায়াত তামরিন ওরফে তানভির ওরফে রনি (৩০),  মোঃ সোহেল (২৪)  ও মোঃ রাসেল (২৩)। এ সময় তামরিন এর  হেফাজত হতে দুটি অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র ও একটি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়।

ডিবি সূত্রে জানানো হয়, গত ৯মে’১৮ অনুমান ০৯.২০ টায় বাড্ডা থানাধীন জাগরণী ক্লাবে ডিশ ব্যবসায়ী বাবুকে গুলি করে পালানোর সময় জনগন ধাওয়া করলে সাফায়াত তামরিন ওরফে তানভির ওরফে রনি, মোঃ সোহেল ও মোঃ রাসেল একটি দোকান ঘরের ভিতর আটকে পড়ে। দোকানে আটকে পড়া সন্ত্রাসীর নিকট আগ্নেয়াস্ত্র থাকায় তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে ডিবি এবং সোয়াট টিম উপস্থিত হয়। জনগণের সহায়তায় তাদেরকে আটক করে পুলিশ।

আটককৃতদের মধ্যে সাফায়াত তামরিন এর দেওয়া তথ্য মতে তাকে নিয়ে বাবু হত্যাকান্ডে অংশগ্রহনকারী পলাতক হেলাল ও অভিকে গ্রেফতার এবং অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে যায় ডিবি উত্তরের ৩টি টিম। ১০ মে’১৮ ভোর চারটায় পুলিশ বাড্ডা থানাস্থ আফতাব নগরের জে ব্লকে উপস্থিত হলে ওৎ পেতে থাকা তানভীর এর সহযোগী কতিপয় সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে উপর্যুপরি গুলিবর্ষণ করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। এ সময় সাফায়াত তামরিন পুলিশকে ধাক্কা মেরে পলায়নের চেষ্টাকালে তার সহযোগী সন্ত্রাসীদের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়। স্থানীয় নিরাপত্তাকর্মী ও লোকজনসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। আটককৃত অপর দুইজনের পরিচয় এবং এ ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টতার বিষয় যাচাই করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ