থানা ও ফাঁড়ির ৩০ শতাংশ পুলিশ মাদকের সাথে জড়িত; সাবেক আইজিপি।

Spread the love

ডেস্ক নিউজ;  বিভিন্ন  থানা ও ফাঁড়ির ৩০ শতাংশ পুলিশ মাদকের সাথে জড়িত, ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি মাদকের সাথে জড়িত পুলিশ, Rab, বিজিবিসহ আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের কাউকে ছাড় না দেয়ার সুপারিশ করেছেন সাবেক আইজিপি নুরুল আনোয়ার। আর অপরাধ বিশ্লেষক শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন বলছেন, মাদক নির্মূলের নামে হত্যাকান্ডের পক্ষে সাফাই গাওয়া খুবই দুঃখজনক।

মাদক নির্মূলে দেশের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায় আইন-শৃংখলা বাহিনী। বিভিন্ন মাদক চিহ্নিত এলাকায় পুলিশ-Rab এর অভিযান নিয়ে জনমনে তৈরী হয়েছে প্রশ্ন। এছাড়াও বন্দুকযুদ্ধে শতাধিক নিহত হওয়ার ঘটনাগুলো বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে সাধারণ মানুষের কাছে।সবশেষ টেকনাফে কাউন্সিলর একরাম নিহতের ঘটনায় মাদকবিরোধী অভিযান নিয়ে চলছে আলোচনা সমালোচনা।

বর্তমানে মাদকের মধ্য ইয়াবা ব্যবহারকারি সব’চে বেশি। আর এই ইয়াবার চালান মিয়ানমার থেকে নাফ নদী ও অরক্ষিত সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করছে বাংলাদেশে। অথচ সেই সীমান্ত অরক্ষিত রেখে সারাদেশে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো যেনো অনেকটা শিকড় রেখে গাছের পাতা কেটে ফেলার সামিল, এমনটাই মনে করেন সাবেক আইজিপি নুরুল আনোয়ার।

অভিযোগ রয়েছে, মাদকের সাথে আইন-শৃংখলা বাহিনীর অনেক সদস্যও জড়িত। সাম্প্রতিক সময়ে এমন কিছু প্রমানও পাওয়া গেছে ।মাদকসেবী বা ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সক্রিয় থাকলেও আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে দৃশ্যমান কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না বলে মনে করেন অনেকে।

সূত্র : বাংলা ভিশন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ