basic-bank

বার বার ফোন, কী হয়েছিল অভিনেত্রী কোয়েনা মিত্রের সঙ্গে?

বার বার ফোনে বিরক্ত করা কিম্বা রাত কাটানোর প্রস্তাব, সম্প্রতি অভিনেত্রী কোয়েনা মিত্রকে এভাবেই বিব্রতকর অবস্থার মুখে পড়তে হয়। কখনও অর্থের বিনিময়ে রাত কাটানোর প্রস্তাব আবার কখনও প্রস্তাবে না করায় অশ্রাব্য ভাষায় হুমকি, একের পর এক ঘটনায় রীতিমত ভয় পেয়ে যান কোয়েনা মিত্র। আর এরপরই পুলিশের শরাণাপন্ন হন তিনিl

এ ব্যাপারে কোয়েনা বলেন, ‘আমি তো নবাগত নই। বহু বছর হল মুম্বাইতে রয়েছি। বলিউডে রয়েছি। কিন্তু এবার আমার সঙ্গে যা হল, তার পর থেকেই আমি ভয় পেয়ে গিয়েছি। হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে গিয়েছে। ’

কী হয়েছিল, যার জন্য এত ভয় পেয়ে গেলেন কোয়েনা? এ বিষয়ে অভিনেত্রী বলেন, ‘গত ২৪ জুলাই থেকে বার বার ফোন করা শুরু হয় আমাকে। তারমধ্যে বেশ কিছু নম্বর বম্বেরও ছিল। যে নম্বরগুলি থেকে ফোন আসতে শুরু করে, সেখানে রিং ব্যাক করেও কোনও উত্তর মেলেনি। এরপর আমি আমার ফোনও পাল্টে নি, নম্বর পাল্টে নি কিন্তু তাতেও কিছু হয়নি।

’তিনি বলেন, ‘ফোন করেই জিজ্ঞাসা করা হত, ‘কোয়েনা? হ্যাঁ, বলছি, বলতেই নানা ধরণের নোঙরা ভাষায় কথা বলা শুরু হত। এইভাবে টানা একদিন নোঙরা কথা শুনে, ভয়ে হাত পা ঠাণ্ডা হয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু, ২৫ জুলাই আর ফোনকল আসেনি। কিন্তু, আচমকাই ২৬ জুলাই ফের ফোন আসতে শুরু করে। এরপর মারাঠিতে আমার সঙ্গে কথা বলে গালিগালাজ করা হয়। ’

কোয়েনা বলেন, ‘প্রথমে ভেবেছিলাম কাজকর্ম নেই, এমন লোকজন ওইসব কীর্তি করছে। কিন্তু, বার বার ফোনের পর ফোন পেয়ে আমি বিরক্ত হয়ে যাই। ভয় পেয়ে যাই। আর এরপরই পুলিশের কাছে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। ’

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।