basic-bank

নিয়মিত স্বামীর রক্তপান করত এই ‘পিশাচ’ স্ত্রী!

দেশবাসীকে ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’ গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কিন্তু এখনও যে দেশের প্রত্যন্ত প্রান্তে আম জনতার বাড়িতে পিশাচ, তন্ত্রসাধনার মতো বুজরুকি চলে, সেখানে এই স্বপ্ন কি আদৌ সফল হবে? ঘটনাস্থল ভারতের বীরভূমের সদাইপুর থানা এলাকা। এক মহিলার বিরুদ্ধে স্বামীর রক্তপানের অভিযোগকে ঘিরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে ওই গ্রামে।

অভিযোগ, অভিজিৎ বাগদির(২২) স্ত্রী সাবিত্রী বাগদি(১৮) সাধনার নামে নিয়মিত স্বামীর বুকের উপর উঠে বসে রক্তপান করত। তাঁদের ঘরে নাকি এদিক-ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে মৃত মানুষের খুলি, হাড়গোড় পড়ে থাকতে দেখা যেত। এমনকি, সাবিত্রীকে প্রতিবেশীরা নগ্ন অবস্থায় বাড়ির চারপাশে ঘুরে বেড়াতে দেখেছে গভীর রাতে। ভয়ে, স্থানীয়রা খুব একটা ওই অভিশপ্ত বাড়ির কাছেও যেতেন না।

সম্প্রতি অভিজিৎ অসুস্থ হয়ে বর্ধমান হাসপাতালে ভর্তি হন। তাঁর মা ছবি বাগদির অভিযোগ, পুত্রবধূর তন্ত্রসাধনার জেরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন অভিজিৎ। নিয়মিত তাঁর রক্তপান করত অভিযুক্ত সাবিত্রী।

শেষ পর্যন্ত গতকাল রবিবার রাতে হাসপাতাল থেকে খবর আসে, অভিজিৎ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন।

এই খবর গ্রামে আসতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় বাসিন্দারা। দলবল বেঁধে তাঁরা মূল অভিযুক্ত ও তার বাবা-মা ও দুই দাদার উপর চড়াও হয়। স্থানীয় কয়েকজনের তৎপরতায় কোনওমতে প্রাণে বাঁচেন অভিযুক্ত। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযুক্তদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।এদিকে স্থানীয়দের অভিযোগ, অভিজিতের মৃতদেহ গ্রামে এসে পৌঁছলেও শোকপ্রকাশ করতে দেখা যায়নি তাঁর স্ত্রীকে। বরং সেই সময় নাকি ঘরের ভিতর থেকে মৃত মানুষের খুলি, কাটা আঙুল নিয়ে এসেও কিছু মন্ত্র পড়তে শুরু করে সাবিত্রী।

অথচ মাত্র দুই বছর আগেই অভিজিৎ ও সাবিত্রীর বিয়ে হয়। তা%

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।